রাবি ভর্তি পরীক্ষার্থীদের বিড়ম্বনার শেষ নেই!

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথমবর্ষে ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষার্থীরা পদে পদে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। খাবার হোটেল ও রিকশা ভাড়া থেকে শুরু করে সবকিছুতেই স্বাভাবিকের চেয়ে দু-তিন গুণ বেশি টাকা নেওয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।
ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের ভাষ্য, ক্যাম্পাসের ভেতরে অনেক খাবারের দোকান ও বিশ্ববিদ্যালয়সংলগ্ন খাবার হোটেলগুলোতে স্বাভাবিক মূল্যের চেয়ে অতিরিক্ত টাকা নেওয়া হচ্ছে। এমনকি অটোযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ে আসতে স্বাভাবিক ভাড়ার চেয়ে তিন গুণ ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। এতে করে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে তাঁদের।
এদিকে শহীদ শামসুজ্জোহা হল শাখা দুই ছাত্রলীগ কর্মী ভর্তিচ্ছুদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত রোববার সন্ধ্যায় হলের বেশ কয়েটি কক্ষ থেকে ‘এক্সক্লুসিভ সাজেশন’ দেয়ার নামে এই চাঁদা আদায় করা হয় বলে জানা গেছে।
ভুক্তভোগী কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে নগরীতে ভর্তিচ্ছু ও তাঁদের অভিভাবকদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ারও অভিযোগ উঠেছে ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে। রিকশা ও অটোরিকশা ভাড়া নেওয়া হচ্ছে ইচ্ছেমতো। আবাসিক হোটেলগুলো দ্বিগুণ ভাড়া আদায় করছে। আর সব ধরনের খাবারের দোকানে নেওয়া হচ্ছে গলাকাটা দাম। কি ক্যাম্পাসে, কি ক্যাম্পাসের বাইরে পুরো নগরীতে একই চিত্র। ব্যবসায়ীদের পকেট কাটার প্রতিযোগিতায় অতিষ্ঠ ভর্তিচ্ছুরা।
এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ বিভিন্ন স্থানে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন ভর্তিচ্ছু ও তাঁদের অভিভাবকরা। তবে এর কোনো প্রতিকার নেই।
Source : Daily Vhorer-dak

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *